ব্রেক্সিটের ফল কী মারাত্মক, তা হাড়ে হাড়ে টের পাচ্ছে ব্রিটেনবাসী, হুঁশিয়ারি ইইউ কমিশন প্রধানের

ব্রেক্সিট করে ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে বেরিয়ে যাওয়ার ফল এখন হাড়ে হাড়ে টের পাচ্ছে ব্রিটেনবাসী। এই পদক্ষেপের কত কুফল রয়েছে তা এখনই অল্প অল্প করে ব্রিটেনের মানুষ বুঝতে পারছে বলে মনে করছেন ইউরোপীয় ইউনিয়ন কমিশনের প্রধান।

ব্রেক্সিটের ফল কী মারাত্মক, তা হাড়ে হাড়ে টের পাচ্ছে ব্রিটেন

ইইউ কমিশন প্রধান জিন ক্লড জাঙ্কার লুক্সেমবার্গ বিশ্ববিদ্যালয়ে একটি আলোচনাসভায় বারবার ব্রিটেনকে এর ফল ভোগ করতে হবে হুঁশিয়ারি দেন। সিদ্ধান্ত নেওয়ার সময় ন্যূনতম বুদ্ধি প্রয়োগ করলে এই সমস্যার সৃষ্টি হতো না বলে মনে করছেন তিনি।

প্রসঙ্গত, ২০১৬ সালের ২৪ জুন গণভোটের মাধ্যমে ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে বেরিয়ে আসে ব্রিটেন। পিছনে বক্তব্য ছিল, ইউরোপীয় ইউনিয়নে থেকে ব্রিটেনের ক্ষতি হচ্ছিল। ব্যবসার ক্ষেত্রে বড্ড বেশি বিধিনিষেধ আরোপ করা হচ্ছিল। অথচ বছরের শেষে কয়েকশো কোটি পাউন্ড সদস্য রাষ্ট্র হিসাবে ব্রিটেনকে জমা দিতে হচ্ছে ইউরোপীয় ইউনিয়নে। বদলে সেভাবে কিছুই লাভ হচ্ছিল না ব্রিটেনের।

পাশাপাশি ইউনিয়নের সদস্য হওয়ায় নিজের দেশের সীমান্তের উপরেও পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণ রাখতে পারছিল না ব্রিটেন। ফলে প্রতিবছর শরণার্থীদের ভিড়ে প্রবল চাপ পড়ছে ব্রিটেনের মানুষের উপরে। তাঁদের অর্থনীতি, জীবন-জীবিকা এতে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছিল। ইউরোপীয় ইউনিয়নের সদস্য দেশগুলির বাসিন্দারা কোনও ভিসা ছাড়াই অন্য দেশে যেতে পারেন ও থাকতে পারেন। এতে সবচেয়ে সমস্যায় পড়ছিল ব্রিটেন। সব দেশ থেকে মানুষ এতে ব্রিটেনে ভিড় করছিল। যা দেশের অর্থনীতির জন্য শুভ নয়। এইসব দাবি তুলেই ব্রিটেনে গণভোট অনুষ্ঠিত হয় ও মানুষ ভোট দিয়ে ব্রেক্সিট ডেকে আনেন।