মহাখালী ফ্লাইওভারে র‍্যাব পরিচয়ে অপহরণের চেষ্টা, গ্রেপ্তার ৩

ছবি সংগৃহীত

ঠিকানা অনলাইন : রাজধানীর মহাখালী ফ্লাইওভারে গাড়ির গতিরোধ করে দুই ব্যক্তিকে অপহরণের চেষ্টার ঘটনায় তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে বনানী থানার পুলিশ। গ্রেপ্তারকৃত ব্যক্তিদের একজন নিজেকে র‍্যাব সদস্য বলে পরিচয় দিয়েছেন।

২১ জানুয়ারি শনিবার বিকেলে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন বনানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুরে আযম মিয়া।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন আরিয়ান আহমেদ জয় (২৩), আল মোমেন (২৬) ও ফরহাদ হোসেন (২২)।

বনানী থানার ওসি নুরে আযম মিয়া বলেন, শুক্রবার রাতে মহাখালী ফ্লাইওভার থেকে র‍্যাব সদস্য পরিচয়ে দুই ব্যক্তিকে অপহরণের চেষ্টার অভিযোগে একটি মামলা দায়ের হয়েছে। মামলা নম্বর ২১। মামলার বাদী শহিদুল ইসলাম এ ঘটনার একজন ভুক্তভোগী। গ্রেপ্তারকৃতদের মধ্যে আল মোমেন নিজেকে র‍্যাব সদস্য পরিচয় দিয়েছেন। তার পরিচয় আমরা যাচাই-বাছাই করে দেখছি। গ্রেপ্তার হওয়া বাকি দুজনের মধ্যে একজন গাড়িচালক এবং অপরজন আল মোমেনের আত্মীয়। তাদের রিমান্ড চেয়ে আদালতে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে বলে জানান তিনি।

বাদী শহীদুল ইসলাম মামলার এজাহারে অভিযোগ করে বলেন, শুক্রবার রাত ১২টার দিকে আমার বন্ধু তারিকের (৩০) সঙ্গে দেখা করতে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে আমার ভাগনে মো. রিয়াজকে নিয়ে যাই। বন্ধু তারিকের সঙ্গে দেখা করে সেখান থেকে রাত ১টা ৪৫ মিনিটে আবার প্রাইভেটকারে করে মানিকগঞ্জে আমার বাড়ির উদ্দেশে রওনা হই।

যাত্রা শুরুর পর রাত ২টা ১৫ মিনিটের দিকে মহাখালী ফ্লাইওভারে পৌঁছালে একটি প্রাইভেটকার আমাদের প্রাইভেটকারকে ব্যারিকেড দিয়ে গতিরোধ করে। ওই প্রাইভেটকার থেকে তিন ব্যক্তি নেমে আমাদের প্রাইভেটকারের কাছে এসে পিস্তলের ভয় দেখিয়ে সঙ্গে থাকা মালামাল লুটের চেষ্টা করে।

তখন আমাদের ডাক-চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে দুষ্কৃতকারীরা পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। এ সময় স্থানীয়রা আরিয়ান আহমেদ জয় (২৩) নামের একজনকে আটক করে। অপর দুষ্কৃতকারীরা প্রাইভেটকার নিয়ে পালিয়ে যায়।

অভিযোগে আরও বলা হয়, আমি তখন জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯ এর মাধ্যমে বিষয়টি বনানী থানার পুলিশকে জানাই। পরে পুলিশ এসে আমাদের উদ্ধার করে। দুষ্কৃতকারীদের আঘাতে আমি ও আমার ভাগনে আহত হই। পরে আমরা শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা নিই।

ওই ব্যক্তির দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে বাকি দুজনকে শনিবার গ্রেপ্তার করে বনানী থানার পুলিশ।

ঠিকানা/এনআই