মহানবীর আদর্শ অনুসরণের মাধ্যমেই আল্লাহর নৈকট্য অর্জন সম্ভব

পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) কনভেনশনে বক্তারা

ঠিকানা রিপোর্ট : নিউইয়র্কে আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাত ইউএসএ আয়োজিত পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) কনভেনশনে বক্তারা বলেছেন, মহানবীর (সা.) আদর্শ অনুসরণের মাধ্যমেই আল্লাহর নৈকট্য লাভ করা সম্ভব।
গত ২১ অক্টোবর জ্যামাইকার তাজমহল পার্টি হলে মাগরিব থেকে রাত ১১ টা পর্যন্ত চলে এই কনভেনশন। মহিলাসহ বিপুল সংখ্যক মুসল্লি এতে যোগ দেন।
মাহফিলে ভিডিও কনফারেন্সে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন হযরত মাওলানা শাহসুফী সৈয়দ সাইফউদ্দিন আহমেদ আল হাসানী ওয়াল হোসাইনী মাইজভান্ডারি। কি-নোট স্পিকার ছিলেন তরুণ ইসলামিক চিন্তাবিদ, লেখক ও গবেষক শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারি অধ্যাপক মাওলানা মুহাম্মদ এমদাদুল হক।

নিউইয়র্ক : জ্যামাইকায় আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাত আয়োজিত ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) কনভেনশনে সুধী।


আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাত ইউএসএ’র কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব মাওলানা সৈয়দ জুবায়ের আহমদের সভাপতিত্বে এবং সহ-সভাপতি মাওলানা আতাউর রহমানের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাত ইউএসএ’র মহাসচিব আলহাজ্ব মোহাম্মদ সেলিম উদ্দিন।
বিশেষ অতিথি ছিলেন মসজিদ আল নুরের ডাইরেক্টর প্রফেসর আল্লামা ক্বারী গোলাম রাসুল। অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সহ-সভাপতি আলহাজ্ব মুহাম্মদ ইকবাল হোসেইন, প্রচার সম্পাদক মাওলানা শেখ মো. মোস্তফা কামাল প্রমুখ।
কনভেনশনে উপস্থিত ছিলেন সৈয়দ হেলাল উদ্দিন মাহমুদ, আলহাজ মো. আসলাম হাবীব, হাজী এসকান্দর মিয়া, আরিফ চৌধুরী, মুরাদুল আলম চৌধুরী, মো. ইউসুফ আলী, মোস্তফা কামাল, হাজী মো. মাহবুবুর রহমান, সফিকুর ইসলাম কুসুমপুরী, শাহ আলম, ওসমান গনি তালুকদার, শাহ জাকারিয়া, আলহাজ নজমুল খান, মো. মাহবুব, আব্দুল হক, সৈয়দ ইসহাক আলী, মো. শাহজাহান, আকিকুর রহমান ফারুক ও বদরুল হক, কমিউনিটি এক্টিভিস্ট গিয়াস আহমেদ, মনির আহমেদ, সৈয়দ বশারত আলী, কাজী নয়ন, আবু তাহের, নুরুল আজিম, কাজী সাখাওয়াত হোসেন আজম, আব্দুর রহমান, আব্দুর রহীম, মো. ইমতিয়াজ, মাসুদ সিরাজী, খোরশেদ খন্দকার, মাওলানা নূরুন নবী, পুলিশ অফিসার হাসনাত, জসীম ইউ আহমেদ, আবু তালেব চান্দু, জয়নাল আবেদীন, রাজা মিয়া, আবুল কালাম, মুরাদ মোজাদ্দেদী, মোহতাসিম বিল্লাহ দুলাল, নাজিম উদ্দিন, নবী হোসেন, আরশাদ ওয়ারেছ, মাকসুদ, দীপু, মো. আকতার, ইসকান্দর হাসেমী, সাফাজ, আবু সালেহ, সৈযদ ইসহাক, এমএ জাফর, মো. ইয়াহিয়া হোসেন, রানা তালুকদার, আমির আলী, হামিদ, আবুল হোসেন, জালাল আহমেদ, জাহাঙ্গীর হোসেন, আকতারুল আজম, হাফেজ ইদ্রিস, খায়রুর বাশার প্রমুখ।
পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত ও না’ত শরিফ পরিবেশনের মাধ্যমে কনভেনশন শুরু হয়।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে মাওলানা সৈয়দ সাইফউদ্দিন আহমেদ আল হাসানী ওয়াল হোসাইনী মাইজভান্ডারি পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবীর (সা.) গুরুত্ব ও তাৎপর্য তুলে ধরে বলেন, আল্লাহর রাসূল (সা.) উম্মাহর আদর্শ। রাসূলে করীম (সা.)-এর অনুসরণ, তাঁকে উসওয়া হিসেবে গ্রহণ করা ঈমানের প্রধান দাবি। রাসূলে করীম (সা.) জীবনের সব ক্ষেত্রে আমাদের আদর্শ। ইবাদত-বন্দেগি, আকীদা-বিশ্বাস, আচার-ব্যবহার, আদব-আখলাক, স্বভাব-চরিত্র- সব বিষয়ে আদর্শ। আর তা ঘোষণা করেছেন স্বয়ং আল্লাহতাআলা। তাঁর আদর্শের অনুসরণে নিজের কর্ম ও জীবনকে গড়ে তোলা আল্লাহর আদেশ, এর মাধ্যমে আল্লাহর নৈকট্য অর্জন সম্ভব হবে।
তিনি বলেন, আল্লাহর রাসূল (সা.) হচ্ছেন পবিত্র ও নির্মল জীবনের নমুনা। তাঁকে অনুসরণ করলে জীবন পবিত্র ও নির্মল হয়ে উঠবে। মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামিন প্রিয় নবী মুহাম্মাদুর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামকে বিশ্ববাসীর জন্যে রহমত হিসেবে প্রেরণ করেন। তিনি হচ্ছেন শান্তি, নিরাপত্তা ও কল্যাণের মূর্ত প্রতীক ‘রাহমাতুল্লিল আলামিন’। পৃথিবীতে হযরত মোহাম্মদ (স.)-এর আবির্ভাব উপলক্ষেই ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা যথাযোগ্য মর্যাদায় প্রতি বছর ঈদে মিলাদুন্নবী (স.) উদযাপন করে থাকেন। জীবনের সব ক্ষেত্রে মহানবীর আদর্শ বাস্তবায়নই মুক্তির পথ, প্রিয় নবী মুহাম্মাদ (সা.)-কে আন্তরিক ভালোবাসাই হলো ঈমান পরিপূর্ণ হওয়ার অন্যতম শর্ত।
আল্লামা জুবায়ের আহমদ বলেন, কুরআন-সুন্নাহর নির্দেশিত পথে চলার মাধ্যমেই ইহকালীন কল্যাণ ও পরকালীন মুক্তি লাভ সম্ভব।
কনভেশনে বিশেষ মুনাজাতে দেশ, জাতির কল্যাণ কামনাসহ বিশ্ব শান্তির জন্য বিশেষ দোয়া করা হয়। পরে তবারুক বিতরণের মধ্য দিয়ে কনভেনশনের সমাপ্তি ঘটে।