‘মহামারি তহবিল’ গঠন করল জি২০

ঠিকানা অনলাইন : প্রাণঘাতী রোগ করোনা মহামারির ক্ষয়ক্ষতি থেকে শিক্ষা নিয়ে ‘মহামারি তহবিল’ নামের একটি বিশেষ তহবিল গঠন করেছে বিশ্বের শিল্পোন্নত ও বড় অর্থনীতির দেশগুলোর জোট জি২০। প্রাথমিক ভাবে এ তহবিলে জমা পড়েছে ১৪০ কোটি ডলার।

ইন্দোনেশিয়ার পর্যটন দ্বীপ বালিতে শুরু হয়েছে জি২০ সম্মেলন। ১৩ নভেম্বর (রবিবার) জোটের সদস্যরাষ্ট্রগুলোর স্বাস্থ্যমন্ত্রী ও অর্থমন্ত্রীদের বৈঠক ছিল। সেই বৈঠকে গৃহীত সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এ তহবিল গঠন করা হয়। ওয়ার্ল্ড ব্যাংকের ওয়েবসাইটে এ তথ্য জানানো হয়।

তবে ইন্দোনেশিয়ার প্রেসিডেন্ট জোকো উইদাদোর ভাষ্য, করোনার মতো বৈশ্বিক কোনো মহামারিকে ঠেকাতে তহবিলের এই পরিমাণ অর্থ যথেষ্ট নয়। অর্থের পরিমাণ আরও বাড়াতে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) এবং ওয়ার্ল্ড ব্যাংকের সহায়তাও প্রত্যাশা করেছেন তিনি।

রোববার এক ভিডিওবার্তায় ডব্লিউএইচওর মহাপরিচালক তেদ্রোস আধানম গেব্রিয়েসুস এবং ওয়ার্ল্ড ব্যাংকের প্রেসিডেন্ট ডেভিড ম্যালপাসের উদ্দেশে উইদাদো বলেন, ‘করোনা মহামারির মতো যে কোনো বৈশ্বিক মহামারি ভবিষ্যতে আঘাত হানতে পারে। সম্ভাব্য সেই দুর্যোগ মোকাবিলা করা এবং এ সংক্রান্ত প্রস্তুতির ব্যয় মেটাতেই তহবিলটি গঠন করা হয়েছে। এরই মধ্যে জি২০ জোটের সদস্যরাষ্ট্রগুলো, জি২০’র বাইরের বিভিন্ন রাষ্ট্র, বেশ কিছু আন্তর্জাতিক সেবামূলক প্রতিষ্ঠান মহামারি তহবিলে অর্থ প্রদান করেছে; কিন্তু এই অর্থ যথেষ্ট নয়।’

ইন্দোনেশিয়ার প্রেসিডেন্টের মতে, করোনা মহামারির মতো কোনো দুর্যোগ যদি ভবিষ্যতে আঘাত হানে— সেক্ষেত্রে তা মোকাবিলায় অন্তত ৩ হাজার ১০০ কোটি ডলার মহামারি তহবিলে থাকা প্রয়োজন।

এ সম্পর্কে ভিডিওবার্তায় তিনি বলেন, ‘মহামারি বা এ জাতীয় দুর্যোগে জনগণকে দুশ্চিন্তামুক্ত রাখা আমাদের দায়িত্ব। করোনা মহামারিতে যেসব অভিজ্ঞতার মধ্যে দিয়ে আমাদের যেতে হয়েছে…. আমরা কেউই চাই না ভবিষ্যতে মহামারির কারণে প্রাণহানি হোক, কিংবা আমাদের অর্থনীতি ছিন্নভিন্ন হয়ে যাক।’

ঠিকানা/এসআর