‘মানসিক স্বাস্থ্যের অবনতির পথে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প’

ঠিকানা অনলাইন : প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মানসিক অবস্থার আরও অবনতি হয়েছে। ফলে তিনি ২০২০ সালের নির্বাচনে প্রার্থী হতে পারবেন না বলে জানিয়েছেন তার সাবেক কর্মকর্তা অ্যান্টনি স্কারামুচি। তিনি আগে হোয়াইট হাউসের কমিউনিকেশনস ডিরেক্টর হিসেবে কাজ করতেন। ২০১৭ সালে যোগদান করার মাত্র ১১ দিনের মাথায় তাকে চাকুরিচ্যুত করেন ট্রাম্প।

গত ৬ সেপ্টেম্বর, শুক্রবার সিটিভিকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে স্কারামুচি বলেন, এক বছর আগে মার্কিন প্রেসিডেন্টকে যেমন দেখেছিলাম এখন আর তেমন নেই। তার অবস্থা আরও খারাপ হয়ে গেছে। তিনি বিশ্বাস করেন, প্রেসিডেন্টের নির্বাচনের সুযোগ প্রতিদিন কমে যাচ্ছে। তবে এটা স্বীকার করেছেন যে, এখনো সুযোগ আছে।

স্কারামুচি বলেন, আমি ভবিষ্যদ্বাণী করে বলতে পারি, ট্রাম্প আর কোনো নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করতে পারবেন না। ট্রাম্প গুরুতর মানসিক অবক্ষয়ের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে। এর ফলে ট্রাম্প একদিন বলবেন, ঠিক আছে; এই সময়ে আমি দুর্দান্ত কাজ করেছি। আমি এই মেয়াদ শেষে অবসর নিতে যাচ্ছি।

স্থানীয় সময় শুক্রবার টরন্টো গ্লোবাল ফোরামে ভাষণ দেওয়া সময়ও তিনি এই দাবি করেন। সেখানেও তিনি বলেন, ট্রাম্পের গুরুতর মানসিক অবক্ষয় হয়েছে। তিনি বলেন, চারপাশে কী ঘটছে তা দেখেই এই কথা বলছি।

দেশটির সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামাকে নিয়ে গত সপ্তাহান্তে একটি টুইট করেছিলেন ট্রাম্প। সেখানে তিনি লেখেন, হারিকেন ডোরিয়ান ওবামার ওপর আঘাত হানবে। তার এরকম টুইটের পরই সাবেক এই কর্মকর্তা এমন মন্তব্য করলেন।

হারিকেন ডোরিয়ান নিয়ে আরও একটি টুইট করেন ট্রাম্প। সেখানে তিনি আলাবামার মানচিত্র ব্যবহার করেন। এ নিয়ে সমালোচনার ঝড় ওঠে। তারপরই ন্যাশনাল ওয়েদার সার্ভিস টুইট করে জানায়, আলাবামায় ডোরিয়ানের কোনো প্রভাব পড়বে না।

হোয়াইট হাউসের আরও একজন সাবেক কর্মকর্তা জানান, তার কাছ থেকে কী প্রত্যাশা করা যায় তা কেউই জানে না। তার মানসিক অবস্থা কিছুক্ষণ পর পর পরিবর্তন হয়।
সূত্র: ইন্ডিপেন্ডেন্ট।