মুনিয়া হত্যা মামলা : ৮ জনকে দায়মুক্তি দিয়ে তদন্ত প্রতিবেদন

ঠিকানা অনলাইন : রাজধানীর গুলশানে কলেজ শিক্ষার্থী মোরাসাত জাহান মুনিয়াকে ধর্ষণ ও হত্যা মামলায় বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সায়েম সোবহান আনভীরসহ ৮ জনকে দায়মুক্তির সুপারিশ করে আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিয়েছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। গত ১২ই অক্টোবর মামলাটির তদন্তকারী কর্মকর্তা গোলাম মুক্তার আশরাফ উদ্দিন ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেন।

আজ ১৯ অক্টোবর (বুধবার) সকালে আদালতের সাধারণ নিবন্ধন শাখার একজন সহকারী উপপরিদর্শক এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তদন্ত প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে, মুনিয়াকে ধর্ষণ ও হত্যায় আনভীর ও অন্যান্যদের সংশ্লিষ্টতা পাননি তদন্তকারী কর্মকর্তা।

গুলশানের বাসা থেকে মরদেহ উদ্ধারের পর গত বছরের ২৬ এপ্রিল ২১ বছর বয়সী কলেজছাত্রীর বড় বোন বাদী হয়ে গুলশান থানায় মামলা দায়ের করেন। এজাহারে আনভীরের বিরুদ্ধে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেয়ার অভিযোগ আনা হয়। গুলশান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও মামলাটির তদন্তকারী কর্মকর্তা আবুল হাসান ১৯ জুলাই ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট কোর্টে চূড়ান্ত প্রতিবেদন জমা দেন। ১৮ আগস্ট আদালত চূড়ান্ত প্রতিবেদন গ্রহণ করেন এবং আনভীরকে মামলা থেকে অব্যাহতি দেন।

এরপর ৬ সেপ্টেম্বর কলেজছাত্রীর বড় বোন ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৮ এ ধর্ষণ ও হত্যার অভিযোগ এনে আবারও মামলা করেন। মামলায় আনভীর এবং আরও ৭ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়। তারা হলেন, বসুন্ধরা গ্রুপের চেয়ারম্যান আহমেদ আকবর সোবহান ওরফে শাহ আলম, তার স্ত্রী আফরোজা বেগম, আনভীরের স্ত্রী সাবরিনা সায়েম, মডেল ফারিয়া মাহবুব পিয়াশা, সাইফা রহমান মীম, ইব্রাহিম আহমেদ রিপন ও তার স্ত্রী শারমীন।

ঠিকানা/এসআর