ম্যানহাটনের টাইমস স্কয়ারে ড্রিম লাইটারের স্বাস্থ্য সুরক্ষাসামগ্রী বিতরণ

নিউইয়র্ক : ড্রিম লাইটার নিউইয়র্কে অবস্থিত একটি অলাভজনক প্রতিষ্ঠান। এই প্রতিষ্ঠান যুক্তরাষ্ট্র, বাংলাদেশ, ভারত, এবং নেপালে দুস্থ ও অসহায় মানুষের সেবায় কাজ করে যাচ্ছে।
নিউইয়র্ক কার্যালয় এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহ থেকে কোভিড-১৯ স্বাস্থ্য সুরক্ষাসামগ্রী- হ্যান্ড স্যানিটাইজার, গ্লাভস, আইসোলেশন গাউন, ফেস কভার, অ্যালকোহল ওয়াইপ, অ্যালকোহল প্যাড, সু কভার বিতরণ শুরু করে। কোভিড-১৯ আক্রান্ত ও সিনিয়র মানুষের জন্য ড্রিম লাইটার ফ্রি হোম ডেলিভারির মাধ্যমে স্বাস্থ্য সুরক্ষাসামগ্রী পৌঁছে দিয়েছে। প্রথম দিকে বাংলাদেশি, নেপালি, ইন্ডিয়ানসহ সাউথ এশিয়ান কমিউনিটি এর মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকলেও, মে থেকে সব নিউইয়র্কার এর মধ্যে প্রতিষ্ঠানটি কোভিড-১৯ স্বাস্থ্য সুরক্ষাসামগ্রী বিতরণ শুরু করেছে- যা এখনো অব্যাহত রয়েছে। ড্রিম লাইটার কুইন্স এ পথচারীদের এর পাশাপাশি গৃহহীন ও স্বল্পআয়ের মানুষের মধ্যে কোভিড-১৯ ইকুইপমেন্ট বিতরণ করে যাচ্ছে। ঘূর্ণিঝড় আমফানের তাণ্ডবে লণ্ডভণ্ড হয়ে যাওয়া বাংলাদেশের শ্যামনগর উপজেলার সর্বস্বান্ত মানুষের মধ্যে সুপেয় পানি, ত্রাণসামগ্রী ও ঘর-বাড়ি হারানো মানুষের জন্য আর্থিক প্যাকেজ দিয়ে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছে ড্রিমলাইটার। অসহায়, দুস্থ ও ক্ষতিগ্রস্তদের মধ্যে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য (চাল, ডাল, তেল, আলু, পেঁয়াজ, সবজি), স্বাস্থ্য সুরক্ষাসামগ্রী বিতরণ করেছে। বিশুদ্ধ পানি ও নগদ অর্থ দিয়ে বানভাসি হাজার হাজার মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে।
ড্রিমলাইটার এই ধারাবাহিক কর্মসূচির অংশ হিসেবে গত ১৩ জুলাই নিউইয়র্কের প্রাণকেন্দ্র ম্যানহাটনের ব্যস্ততম এবং বিখ্যাত পর্যটন কেন্দ্র টাইমস স্কয়ার এ কোভিড-১৯ স্বাস্থ্য সুরক্ষাসামগ্রী বিতরণ কর্মসূচি, নিউইয়র্ক পুলিশ ডিপার্টমেন্টের সহযোগিতায় সুশৃঙ্খল, সুন্দর ও সফলভাবে পরিচালিত হয়।
করোনাভাইরাস প্রতিরোধে স্বাস্থ্যসুরক্ষা সরঞ্জাম (গাউন, হ্যান্ড স্যানিটাইজার, মাস্ক, সার্জিকাল গ্লাভস, ফেস কভার, অ্যালকোহল ওয়াইপস, অ্যালকোহল প্যাড, সু কভার) উপস্থিত সাধারণ মানুষ এবং নিউইয়র্ক পুলিশ অফিসারদের মধ্যে বিতরণ করা হয়। ওই সামগ্রী গ্রহণকারী মানুষ এবং পুলিশ অফিসাররা কর্মসূচির ভূয়সী প্রশংসা করেন। অনেকেই বলেন বিতরণকৃত সামগ্রী অনেক মূল্যবান এবং সময়োপযোগী।
এই কর্মসূচিতে ড্রিমলাইটারের প্রেসিডেন্ট ও সিইও ডি এম সবুজ, ডিরেক্টর অব ফিন্যান্স আবুল হায়াৎ এবং ডিরেক্টর অব ইন্টারন্যাশনাল অ্যাফেয়ার্স মাসুদ সিদ্দিকী উপস্থিত ছিলেন।
কর্মসূচি পরিচালনা করেন ড্রিমলাইটারের সম্মানিত সদস্য রাসেল মিয়া, হিশাম হোসেন, এখলাছুর রহমান শিপন, সাহানা শারমিন, দেবেন্দ্র চ্যাটার্জী, খালেদুর রহমানসহ ড্রিমলাইটারের অন্য স্বেচ্ছাসেবকরা।
এই মহামারীতে মানুষের মধ্যে অতি প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্য সুরক্ষাসামগ্রী বিতরণ করার মধ্যে দিয়ে কোভিড-১৯ এর সংক্রমণ এবং মানুষের জীবনহানি হ্রাস করতে ড্রিমলাইটার এই কর্মসূচি অব্যাহত রাখতে বদ্ধপরিকর। বিজ্ঞপ্তি।