ময়মনসিংহে কলেজছাত্রী ছুরিকাহত

ময়মনসিংহ : প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় ময়মনসিংহ শহরের গাঙ্গিনারপাড় এলাকায় এক কলেজছাত্রীকে কুপিয়ে আহত করেছে তারই মামাতো ভাই। গত ১৯ জানুয়ারি সন্ধ্যা ৭টায় সে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়। পরে ওই ছাত্রীকে আহতাবস্থায় ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
আহত ফারহানা আক্তার রিমার বাবা হোমিও চিকিৎসক হেলাল উদ্দিন ও স্বজনেরা জানান, তার মেয়ে পড়াশোনার জন্য ময়মনসিংহ শহরের গোলকি বাড়ি এলাকায় একটি ছাত্রী মেসে থাকেন। রিমা ময়মনসিংহের মুমিনুন্নিসা মহিলা কলেজের অর্থনীতি বিভাগে প্রথম বর্ষে পড়ছে। কয়েক বছর ধরে রিমার দূরসম্পর্কের মামাতো ভাই গার্মেন্টশ্রমিক আবুল কাশেম তাকে উত্ত্যক্ত করে বিভিন্ন সময় বিয়ের প্রস্তাব দিয়েছে। কিন্তু পরিবার এ প্রস্তাব মেনে নেয়নি এবং রিমাও প্রেমে সায় দেয়নি। এ ঘটনায় কাশেম ক্ষুব্ধ হয় গত ১৯ জানুয়ারি সন্ধ্যায় শহরের গাঙ্গিনারপাড় এলাকায় ডেকে এনে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়।
হাসপাতলের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ডা. মাহাবুব হোসেন জানান, রিমার কানের নিচে, বুকে ও হাতে কয়েকটি আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। রক্তক্ষরণ হওয়ায় তাকে ক্যাজুয়ালটি ইউনিটে রেখে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। রিমা জানান, কাশেম দীর্ঘদিন ধরে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। গত ১৯ জানুয়ারি বিকেলে কাশেম তাকে মোবাইল ফোনে জরুরি প্রয়োজনের কথা বলে গাঙ্গিনারপাড় এলাকার আসতে বলে। রিমা গাঙ্গিনারপাড় এলাকার একটি মার্কেটে আসার পর হঠাৎ কাশেম বিয়ের প্রস্তাব দেয় এবং আবোলতাবোল বলতে থাকে। এ সময় প্রেম বা বিয়ের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় কাশেম উত্তেজিত হয়ে উপর্যুপরি ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়।
ময়মনসিংহের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এস এ নেওয়াজী জানান, ওই শিক্ষার্থীর ছুরিকাঘাতের খবর শুনে হাসপাতালে খোঁজখবর নেওয়া হয়েছে। পরিবারের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ছেলেটি বখাটে। তাকে গ্রেফতার করার জন্য অভিযান চলছে।