যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগ মেক্সিকান প্রেসিডেন্টের

ঠিকানা অনলাইন : যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা দপ্তর পেন্টাগনের বিরুদ্ধে গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগ এনেছেন মেক্সিকোর প্রেসিডেন্ট আন্দ্রেস ম্যানুয়েল লোপেজ ওব্রাডর। একই সঙ্গে জাতীয় নিরাপত্তা রক্ষায় মেক্সিকান সশস্ত্র বাহিনীর তথ্য আরও সুরক্ষিত করার ঘোষণাও দিয়েছেন তিনি।

মার্কিন গণমাধ্যমে তথ্য ফাঁস হওয়ার পর মঙ্গলবার তিনি এ মন্তব্য করেন। খবর রয়টার্সের।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মার্কিন গণমাধ্যমে তথ্য ফাঁস হওয়ার পর পেন্টাগন মেক্সিকোর সরকারের ওপর গুপ্তচরবৃত্তি করছে বলে মঙ্গলবার অভিযোগ এনেছেন আন্দ্রেস ম্যানুয়েল লোপেজ ওব্রাডর।

মেক্সিকান এ প্রেসিডেন্ট বলেছেন, জাতীয় নিরাপত্তা রক্ষার জন্য সশস্ত্র বাহিনীর তথ্য এখন থেকে সুরক্ষিত করা শুরু করবেন তিনি।

রয়টার্সের প্রতিবেদনে আরও বলছে, মেক্সিকোর নৌবাহিনী ও সেনাবাহিনীর মধ্যে বিদ্যমান উত্তেজনা সম্পর্কে প্রভাবশালী মার্কিন সংবাদমাধ্যম ওয়াশিংটন পোস্ট রিপোর্ট করার বেশ কয়েক দিন পর প্রেসিডেন্ট ওব্রাডরের এ মন্তব্য সামনে এলো।

মূলত মেক্সিকান নৌবাহিনী ও সেনাবাহিনীর মধ্যে উত্তেজনা সম্পর্কে অনলাইনে মার্কিন রেকর্ড প্রকাশের পর মার্কিন সামরিক ব্রিফিংয়ের উদ্ধৃতি দিয়ে ওয়াশিংটন পোস্টের ওই রিপোর্টটি প্রকাশিত হয়েছিল।

লোপেজ ওব্রাডর বলেন, আমরা এখন থেকে নৌবাহিনী এবং প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের সব তথ্য সুরক্ষিত করতে যাচ্ছি। কারণ আমরা পেন্টাগনের গুপ্তচরবৃত্তির শিকার হয়েছি।

এদিকে এ ঘটনায় প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে পেন্টাগনও। সংস্থাটির একজন মুখপাত্র বলেছেন, মেক্সিকোর সেনাবাহিনী ও নৌবাহিনীর সঙ্গে মার্কিন প্রতিরক্ষা বিভাগের ‘দৃঢ় সহযোগিতামূলক প্রতিরক্ষা অংশীদারত্ব’ রয়েছে এবং এসব সংস্থা ‘একে অপরের সার্বভৌমত্ব এবং নিজ নিজ বৈদেশিক নীতির এজেন্ডাকে সম্মান করে’ অভিন্ন চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করে থাকে।

রয়টার্স বলছে, মেক্সিকোর সশস্ত্র বাহিনীর বিরুদ্ধে গুম ও হত্যাসহ বছরের পর বছর ধরে ক্ষমতার অপব্যবহারের অভিযোগ রয়েছে এবং এ কারণে সামরিক বাহিনীকে জবাবদিহি করার জন্য চাপের মুখে রয়েছেন লোপেজ ওব্রাডোর।

কিন্তু এর পরও মেক্সিকোর এই প্রেসিডেন্ট জননিরাপত্তায় সেনাবাহিনীর ভূমিকা বাড়িয়েছেন এবং ন্যাশনাল গার্ড নামে সামরিকায়িত পুলিশ বাহিনীকে সেনাবাহিনীর নিয়ন্ত্রণে রাখার চেষ্টা করেছেন।

ঠিকানা/এসআর