যুক্তরাষ্ট্রে আমরা শিখতে এসেছি, ঘুরতে নয় : মেয়র আতিক

ফ্লোরিডায় বাংলাদেশ কনসাল জেনারেল অফিসে মতবিনিময়কালে প্রবাসী বাঙালিদের উদ্দেশে বক্তব্য দেন মেয়র আতিক। ছবি : সংগৃহীত

ঠিকানা অনলাইন : যুক্তরাষ্ট্র সফরে এসেছেন শেখার জন্য, ঘোরার জন্য নয় বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম। তিনি বলেন, ‘আমরা ফ্লোরিডার মিয়ামিতে কয়েক দিন ধরে বেশ কিছু বিষয়ের ওপর অভিজ্ঞতা অর্জন করেছি। এখানকার ভালো চর্চা দেশেও বাস্তবায়ন করতে চাই। আমরা এখানে শিখতে এসেছি, ঘুরতে নয়। প্রতিটি বিষয়ের ওপর গুরুত্বসহকারে শেখানো হচ্ছে।’

২৩ জানুয়ারি সোমবার স্থানীয় সময় দুপুর ১২টায় ফ্লোরিডায় বাংলাদেশ কনসাল জেনারেল অফিসে মতবিনিময়কালে যুক্তরাষ্ট্রপ্রবাসী বাঙালিদের উদ্দেশে ডিএনসিসির মেয়র এসব কথা বলেন। ডিএনসিসির জনসংযোগ বিভাগ থেকে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। মেয়রের যুক্তরাষ্ট্র সফরে বাংলাদেশের কয়েকজন সাংবাদিকও অংশ নেন।

আমেরিকাপ্রবাসী বাঙালিদের উদ্দেশে মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম বলেন, ‘কোনো কিছুর গবেষণা না থাকলে টেকসই উন্নয়ন হবে না। আমি আপনাদের সহযোগিতা চাই। ডিএনসিসিতে ট্যাক্স সেবা অনলাইনে শুরু হয়েছে। এটি বাস্তবায়ন করতে অনেক কষ্ট হয়েছে। অনলাইন চালু হওয়ায় দুষ্ট লোকেরা অবৈধ লেনদেনবঞ্চিত হয়েছে। তাই সেবাটি চালু করা বড় চ্যালেঞ্জ ছিল। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ডিজিটাল ও স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে অনেক কষ্ট করছেন। পদে পদে বাধা, তার পরও চেষ্টা করে যাচ্ছেন। আমরাও প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনাকে বাস্তবে রূপ দিতে কাজ করে যাচ্ছি।’

ডিএনসিসির মেয়র আরও বলেন, ‘বিদেশের যে যেখানে গবেষণা কাজ করছেন বা যা-ই ভালো কিছু করছেন, সবাই দেশের জন্য কিছু করতে চান। ডিএনসিসিতে যেকোনো ভালো চর্চা যদি কেউ করতে চান, সেই সুযোগ আমি দেব। এমনও হতে পারে, ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আপনারা আমাদের পরামর্শ দিতে পারেন। আপনাদের সহযোগিতায় নগরবাসীর জন্য নতুন কিছু করতে চাই। দেশ আপনাদের দিকে তাকিয়ে আছে। সিটি আপনাদের দিকে তাকিয়ে আছে। যেকোনো সময় নতুন কোনো ধারণা থাকলে যোগাযোগ করবেন।’

কনসাল জেনারেল ইকবাল আহমেদের সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় আরও বক্তব্য দেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের সচিব মোহাম্মদ মাসুদ আলম ছিদ্দিক, আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা সাজিয়া আফরীন, কাউন্সিলর মো. মতিউর রহমান, কাউন্সিলর ফরিদ আহমেদ, মিতু আক্তার প্রমুখ।

ঠিকানা/এনআই