যুক্তরাষ্ট্রে উচ্চশিক্ষা গ্রহণে বাংলাদেশি শিক্ষার্থী বাড়ছে

ঠিকানা রিপোর্ট : বাংলাদেশ থেকে উচ্চশিক্ষা গ্রহণে যুক্তরাষ্ট্রে আসা শিক্ষার্থীর সংখ্যা ক্রমেই বাড়ছে। এক পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, যুক্তরাষ্ট্রে আগমণে শিক্ষার্থীর সংখ্যায় শীর্ষে থাকা চীনের শিক্ষার্থী সংখ্যা কমেছে। বেড়েছে বাংলাদেশ (১৮ দশমিক ৯ শতাংশ) ও ভারত (২৩ দশমিক ২ শতাংশ) থেকে আসা শিক্ষার্থীর সংখ্যা।
যুক্তরাষ্ট্রে অধ্যয়নরত বিদেশি শিক্ষার্থীদের নিয়ে প্রকাশিত ‘ওপেনস ডোরস-২০২২’ শীর্ষক প্রতিবেদনের তথ্য বলছে, যুক্তরাষ্ট্রে আসা বিশ্বের ২৫ দেশের তালিকায় বাংলাদেশের অবস্থান এখন ১৩তম। বর্তমানে দেশটিতে বাংলাদেশি শিক্ষার্থীর সংখ্যা ১০ হাজার ৫৯৭ জন।
অন্যদিকে শিক্ষার্থীর সংখ্যায় বরাবরের মতো এ তালিকায় শীর্ষ অবস্থান ধরে রেখেছে চীন। এর পরই আছে প্রতিবেশী দেশ ভারত। তালিকায় তৃতীয়, চতুর্থ ও পঞ্চম অবস্থানে রয়েছে যথাক্রমে দক্ষিণ কোরিয়া, কানাডা ও ভিয়েতনাম।
যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থান করা শিক্ষার্থীদের নিয়ে করা ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের তালিকায় বাংলাদেশি শিক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ৮ হাজার ৫৯৮ জন। অর্থাৎ গত এক বছরে দেশটিতে বাংলাদেশি শিক্ষার্থীর সংখ্যা বেড়েছে ১ হাজার ৯৯৯ জন।
বাংলাদেশ ২০১৬-২০১৭ শিক্ষাবর্ষে ওপেনস ডোরস পরিসংখ্যানে যুক্ত হয়। সে সময় ২৫টি দেশের তালিকায় বাংলাদেশের অবস্থান ছিল সবশেষে। ওই অর্থবছরে দেশটিতে বাংলাদেশি শিক্ষার্থী ছিল ৭ হাজার ১৪৩ জন।
‘ওপেনস ডোরস’ মূলত যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়, কলেজে বিদেশি শিক্ষক ও অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীদের নিয়ে একটি পরিসংখ্যানমূলক সংস্থা। মূলত এ তথ্যের মাধ্যমে দেশটিতে কতসংখ্যক বিদেশি শিক্ষার্থী অধ্যয়ন করছে, অধ্যয়ন শেষে নিজ দেশে ফিরে গেছে, কতসংখ্যক বৃদ্ধি পেয়েছে- এমন তথ্য প্রতি অর্থবছরে প্রকাশ করা হয়।
তালিকায় যুক্তরাষ্ট্রের ২২৫টি কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ে ঠিক কী পরিমাণ বিদেশি শিক্ষার্থী রয়েছে, তা বিবেচনায় নেয়া হয়েছে। এ তালিকায় নিউইয়র্ক ইউনিভার্সিটিতে সবচেয়ে বেশি শিক্ষার্থী পড়াশোনা করছেন। প্রতিষ্ঠানটিতে ২১ হাজার ৮১ জন বিদেশি শিক্ষার্থী রয়েছেন। এ ছাড়া নর্থ-ইস্টার্ন ইউনিভার্সিটতে ১৭ হাজার ৮৩৬ জন, কলম্বিয়া ইউনিভার্সিটিতে ১৬ হাজার ৮৫৬ জন, ইউনিভার্সিটি অব সাউদার্ন ক্যালিফোর্নিয়ায় ১৫ হাজার ৭২৯ জন, অ্যারিজোনা স্টেট ইউনিভার্সিটিতে ১৫ হাজার ২৯৩ জন ও ইউনিভার্সিটি অব ইলিনয়েসে ১২ হাজার ৮৩৩ জন বিদেশি শিক্ষার্থী রয়েছে।
মূলত এ পরিসংখ্যানে চার ধরনের শিক্ষাগত যোগ্যতাকে বিবেচনায় নেয়া হয়েছে। এর মধ্যে পোস্ট গ্র্যাজুয়েট, আন্ডার গ্র্যাজুয়েট, নন-গ্র্যাজুয়েট, ওপিটি। পরিসংখ্যানে এশিয়া থেকে সবচেয়ে বেশি শিক্ষার্থী এসেছে আন্ডার গ্র্যাজুয়েট সনদ নিতে। এরপর গ্র্যাজুয়েট, ওপিটি। নন-গ্র্যাজুয়েট সনদ নিতে যুক্তরাষ্ট্রে এসেছে এমন শিক্ষার্থীর সংখ্যা খুবই কম।
প্রতিবেদনে প্রতিবেশী দেশ ভারতের শিক্ষার্থীদের যুক্তরাষ্ট্র আসার পরিসংখ্যানের পরিধি অনেক বেশি। ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের হিসাব অনুযায়ী, দেশটিতে অধ্যয়ন করছেন ২ লাখ ৯০ হাজার ৮৬ শিক্ষার্থী।
যুক্তরাষ্ট্র বিদেশি শিক্ষার্থীদের অধ্যয়ন, গবেষণাসহ শিক্ষার নানা খাতে দেশটিতে প্রবেশের সুযোগ দিয়ে থাকে। বিদেশি শিক্ষার্থী বৃদ্ধির এ তালিকায় রয়েছে, জাপান ১৪ দশমিক ১ শতাংশ, নাইজেরিয়া ১২ দশমিক ৩ শতাংশ, মেক্সিকো ১১ দশমিক ৭ শতাংশ, ব্রাজিল ৬ দশমিক ৪ শতাংশ ও নেপাল ৫ দশমিক ৬ শতাংশ। যুক্তরাষ্ট্রে গত ২০২০-২১ অর্থবছরের তুলনায় শিক্ষার্থী আসার ক্ষেত্রে ৩ দশমিক ৮ শতাংশ বেড়েছে।