যুদ্ধবিমান উড়িয়ে উ. কোরিয়াকে সতর্ক করল যুক্তরাষ্ট্র

ঠিকানা অনলাইন : উত্তর কোরিয়ার ধারাবাহিক পরীক্ষামূলক ক্ষেপণাস্ত্র উেক্ষপণের বিরুদ্ধে নিজের সতর্ক অবস্থান জানান দিতে মিত্র দেশ দক্ষিণ কোরিয়ার আকাশসীমায় অত্যাধুনিক যুদ্ধবিমান উড়িয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। স্থানীয় সময় শনিবার সিউলের সঙ্গে যৌথ বিমান মহড়ার শেষ দিনে যুদ্ধবিমানের এমন সতর্কতামূলক প্রদর্শনী করে যুক্তরাষ্ট্র।

দক্ষিণ কোরিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে বলা হয়, শনিবার যৌথ মহড়ার শেষ দিনে অন্তত একটি বি-১বি বোমারু বিমান অংশ নেয়। এদিকে দক্ষিণ কোরিয়ার সামরিক বাহিনী জানিয়েছে, সমুদ্রে আরো চারটি স্বল্প-পাল্লার ব্যালেস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করেছে উত্তর কোরিয়া। যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়ার যৌথ বিমান মহড়ার পালটা প্রতিক্রিয়ায় ক্রমাগত ব্যালেস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষামূলক পরীক্ষা চালিয়ে যাচ্ছে উত্তর কোরিয়া। সর্বশেষ স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে দক্ষিণ কোরিয়া সংলগ্ন সমুদ্রসীমায় ৮০টিরও বেশি কামানের গোলা ও ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করে পিয়ংইয়ং।

তাছাড়া বৃহস্পতিবার সীমান্তবর্তী এলাকায় ১৮০টি যুদ্ধবিমান উড়িয়েছিল উত্তর কোরিয়া। এর প্রতিক্রিয়ায় নিজেদের ৮০টি যুদ্ধবিমান মোতায়েন করে দক্ষিণ কোরিয়া। শুক্রবার উত্তর কোরিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছিল, আমাদের এসব সামরিক পদক্ষেপগুলো ওয়াশিংটন-সিউলের যৌথ সামরিক মহড়ার বিরুদ্ধে উপযুক্ত প্রতিক্রিয়া। নিজেদের সার্বভৌমত্ব বা নিরাপত্তা রক্ষায় শত্রুদের যে কোনো ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে কঠোর জবাব দেবে পিয়ংইয়ং।

ওয়াশিংটন ও সিউলের যৌথ মহড়ায় প্রায় ২৪০টি যুদ্ধবিমান উড়ানো হয়, যেগুলোর মধ্যে দুটি দেশের অত্যাধুনিক এফ-৩৫ ও রয়েছে। বাইডেন ও ইউন সুক-ইওল প্রশাসনের এমন শক্তি প্রদর্শনী উত্তেজিত করে তোলে কিম জং উন প্রশাসনকে। এ সপ্তাহে পূর্বাঞ্চলীয় উপকূল বরাবর সমুদ্রে অন্তত এক ডজনের বেশি ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করে পিয়ংইয়ং। এসবের মধ্যে ইন্টারকন্টিনেন্টাল ব্যালেস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপের ঘটনাটি জাপানের উত্তরাঞ্চলে উত্তেজনার সৃষ্টি করে। উত্তর কোরিয়ার এমন আচরণে নিজেদের আকাশসীমায় যুদ্ধবিমান উড়িয়েছিল জাপান।

এদিকে, শুক্রবার ওয়াশিংটনে আয়োজিত এক বৈঠকে নিজেদের মধ্যে সহযোগিতা আরো বাড়ানোর প্রস্তাব দেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা সচিব লয়েড জেমস অস্টিন ও দক্ষিণ কোরিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রী লি জং-সুপ। উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে নিজেদের সামর্থ্য সর্বোচ্চ করার আহবান জানান দক্ষিণ কোরিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রী। এরই মধ্যে উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে একত্র হতে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ সদস্যদের প্রতি আহবান জানিয়েছে ওয়াশিংটন। এতে সমর্থন দিয়েছে—যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স, আলবেনিয়া, আয়ারল্যান্ড ও নরওয়ে।

ঠিকানা/এসআর