লন্ডন প্রবাসী বাংলাদেশিদের পাকিস্তান দূতাবাস ঘেরাও

১৯৭১ সালে বাংলাদেশে গণহত্যার জন্যে আনুষ্ঠানিকভাবে পাকিস্তানের ক্ষমা চাওয়াসহ আরও বেশ কিছু দাবিতে পাকিস্তান দূতাবাস ঘেরাও করেছে যুক্তরাজ্যের লন্ডন প্রবাসী বাংলাদেশিরা।

লন্ডন সময় বৃহস্পতিবার সেখানকার পাকিস্তান দূতাবাসের সামনে যুদ্ধাপরাধ বিচার মঞ্চ, যুক্তরাজ্য, যুক্তরাজ্য বঙ্গবন্ধু পরিষদ, গণজাগরণ মঞ্চ ইউকে, ইন্টারন্যাশনাল ক্রাইম রিসার্চ ফাউন্ডেশন, একাত্তরের ঘাতক-দালাল নির্মুল কমিটি ইউকে, বাংলাদেশ হিউম্যান রাইট কাউন্সিল ইউকে ও বিশ্ববাংলার উদ্যোগে এই কর্মসূচি পালন করে।

গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র অজন্তা দেব রায় ও আনিছুর রহমান আনিছের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত এই কর্মসূচিতে বেশ কয়েকটি দাবি জানানো হয় পাকিস্তানের দূতাবাসের প্রতি। যুদ্ধাপরাধ বিচারমঞ্চ ইউকের প্রেসিডেন্ট সাংবাদিক মতিয়ার চৌধুরী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন।

১৯৭১ সালে বাংলাদেশে গণহত্যার জন্যে পাকিস্তানকে আনুষ্ঠানিকভাবে ক্ষমা প্রার্থনা। বাংলাদেশের ন্যায্য হিস্যা ফেরত। ১৯৫ জন চিহ্নিত যুদ্ধাপরাধীকে বিচারের জন্যে বাংলাদেশের কাছে হস্তান্তর। বাংলাদেশে থাকা পাঁচ লক্ষ পাকিস্তানি নাগরিককে ফিরিয়ে নেওয়া। তৎকালীন পাকিস্তানের অংশে থাকা বাংলাদেশের ন্যায্য হিস্যা ফেরত। মুক্তিযুদ্ধে ক্ষতিগ্রস্ত ও নির্যাতিত পরিবারের সদস্যদের ক্ষতিপূরণ দেওয়া। বেলুচিস্তানের হত্যা নির্যাতন বন্ধের দাবি। পাকিস্তানের পৃষ্ঠপোষকতায় গড়ে ওঠা জঙ্গিসংগঠনগুলো বন্ধের দাবি জানানো হয়।

ঘেরাও কর্মসূচি পালন শেষে সাংবাদিক মতিয়ার চৌধুরী ও অজন্তা দেবরায়ের নেতৃত্বে পাকিস্তান হাই কমিশন বরাবরে একটি স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।