শিক্ষককে পেটানো সেই আওয়ামী লীগ নেতাকে অব্যাহতি

ঠিকানা অনলাইন : প্রধান শিক্ষককে মারধরের অভিযোগে কুড়িগ্রামের রৌমারী উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক মো. রোকনুজ্জামান রোকনকে দল থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।

২১ জানুয়ারি (শনিবার) রাতে রৌমারী প্রেস ক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে রৌমারী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু হোরায়রা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, রৌমারী উপজেলা আওয়ামী লীগের সদ্য ঘোষিত কমিটির ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক রোকনুজ্জামান রোকন উপজেলার ফুলকারচর নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. নুরুন্নবীকে চড়থাপ্পড়, কিল-ঘুষি মারতে থাকেন। এটা মোটেও ঠিক করেননি তিনি। বড় মাপের অন্যায় করেছেন। কুড়িগ্রাম জেলা আওয়ামী লীগের নির্দেশে তাকে দলের সব কার্যক্রম থেকে অব্যাহতি দেওয়া হলো।’

এদিকে মারধরের ঘটনায় শনিবার সন্ধ্যায় আওয়ামী লীগ নেতা রোকনুজ্জামান রোকন, সহযোগী আসাদুজ্জামান ও অজ্ঞাত আরও ১০-১২ জনকে আসামি করে রৌমারী থানায় মামলা করেছেন ভুক্তভোগী প্রধান শিক্ষক মো. নুরুন্নবী।

বিদ্যালয়ের নিয়োগ সংক্রান্ত বিষয়ে নিয়ে প্রধান শিক্ষক মো. নুরুন্নবীর সঙ্গে উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা রোকনুজ্জামান ও আসাদুল ইসলামের বিরোধ চলে আসছিল। বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে বিদ্যালয়ের অফিস সহকারী আব্দুর রশিদসহ উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসে যান নুরুন্নবী।

পথে রোকনুজ্জামান এবং তার সহযোগীরা শিক্ষককে তুলে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও রৌমারী সিজি জামান উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবু হোরায়রার বিদ্যালয়ে অফিস কক্ষে নিয়ে যান এবং ঘটনা খুলে বলতে থাকেন। এ সময় রোকনুজ্জামান ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে চড়থাপ্পর ও কিল-ঘুষি মারেন।

সম্প্রতি শিক্ষককে মারধরের সিসিটিভি ফুটেজ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। এতে উপজেলা আওয়ামী লীগের পাশাপাশি জেলা আওয়ামী লীগের অনেক নেতা তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। দলের অনেক নেতাকর্মী বিব্রতকর অবস্থায় পড়েন।

ঠিকানা/এসআর