শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে সেমিতে ইংল্যান্ড, বিদায় অস্ট্রেলিয়ার

ছবি সংগৃহীত

ঠিকানা অনলাইন : শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে পৌঁছেছে ইংল্যান্ড। ৫ নভেম্বর শনিবার সিডনিতে সুপার টুয়েলভে গ্রুপ-১ এর শেষ ম্যাচে লঙ্কানদের ৪ উইকেটে হারায় ইংলিশরা।

ইংল্যান্ডের জয়ে কপাল পুড়েছে বর্তমান বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়ার। বিদায়ঘণ্টা বেজেছে অজিদের।

গ্রুপ-১ থেকে ৫ ম্যাচে ৭ পয়েন্ট নিয়ে আগেই সেমির খেলা নিশ্চিত করেছে নিউজিল্যান্ড। শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে ইংল্যান্ডের পয়েন্টও ৭। অস্ট্রেলিয়ার পয়েন্টও ৭। তবে নেট রান রেটে এগিয়ে থাকায় সেমির টিকিট পেল ২০১০ বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। ঘরের মাঠে দর্শক বনে গেলেন অ্যারন ফিঞ্চরা।

টস জিতে আগে ব্যাট করতে নেমে শ্রীলঙ্কার সংগ্রহ ৮ উইকেটে ১৪১ রান। জবাবে ইংল্যান্ড লক্ষ্যে পৌঁছায় ২ বল হাতে রেখে, ১৪৪/৬।

জয়ের লক্ষ্যে খেলতে নামা ইংল্যান্ডের শুরুটা দারুণ করেন দুই ওপেনার অধিনায়ক জশ বাটলার ও আলেক্স হেলস। পাওয়ার প্লের ৬ ওভারে দুজনে তোলেন ৭০ রান, যা চলমান টুর্নামেন্টে সর্বোচ্চ।

অষ্টম ওভারে প্রথম উইকেট হারায় ইংল্যান্ড। হাসারাঙ্গার বলে করুনারত্নের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন জশ বাটলার (২৩ বলে ২৮)। ফিফটির খুব কাছাকাছি গিয়েও হতাশ করেন হেলস। তিনিও হাসারাঙ্গার শিকার। ৩০ বলে সাত চার ও এক ছক্কায় ৪৭ রান করে ফেরেন তিনি।

এরপর মিডল অর্ডারে বিপর্যয়। দ্রুত বিদায় নেন হ্যারি ব্রুক, লিভিংস্টন ও মঈন আলী। তবে এক প্রান্ত আগলে রেখে চাপে পড়া ইংল্যান্ডকে পথ দেখানোর চেষ্টা করেন বেন স্টোকস। এরপর স্যাম কুরান বিদায় নিলেও দলকে জয় পাইয়ে মাঠ ছাড়েন বেন স্টোকস ও ক্রিস ওকস।

৩৬ বলে দুই চারে ৪২ রানে অপরাজিত থাকেন স্টোকস। ৩ বলে ৫ রানে অপরাজিত থাকেন ক্রিস ওকস। শ্রীলঙ্কার হয়ে দুটি করে উইকেট নেন লাহিরু কুমারা, হাসারাঙ্গা ও ধনঞ্জয়া।

এর আগে টস জিতে ব্যাট করতে নামা শ্রীলঙ্কার হয়ে বলতে গেলে লড়াই করেন একাই পাথুম নিশাঙ্কা। ৪৫ বলে তিনি খেলেন সর্বোচ্চ ৬৭ রানের ইনিংস। পাঁচটি ছক্কা ও দুটি চার ছিল তার ইনিংসে। বাকিরা ছিলেন ব্যর্থতার মিছিলে।

ওপেনার কুশল মেন্ডিস ১৪ বলে একটি করে চার ও ছক্কায় ১৮ রান করেন। ধনঞ্জয়া (৯) ও আসালাঙ্কা (৮) ছুঁতে পারেননি দুই অঙ্কের রান। অধিনায়ক দাশুন শানাকা উডের বলে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দেওয়ার আগে করে যান ৮ বলে ৩ রান।

মিডল অর্ডারে ২২ বলে তিন চারে ২২ রান করেন ভানুকা রাজাপাকসে। ৯ বলে ৯ রান করেন ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা। ইংল্যান্ডের হয়ে বল হাতে মার্ক উড তিনটি এবং স্টোকস, ওকস, কারান ও রশিদ একটি করে উইকেট নেন। ৪ ওভারে মাত্র ১৬ রান দিয়ে ১ উইকেট নেওয়ায় ম্যান অব দ্য ম্যাচ হন ইংল্যান্ডের আদিল রশিদ।

ঠিকানা/এনআই