সাবেক গভর্নর রমনীর সিনেটে প্রতিদ্বন্দ্বিতা ঘোষণা স্থগিত

FILE - In this Jan. 19, 2018, file photo, former Republican presidential candidate Mitt Romney speaks about the tech sector during an industry conference, in Salt Lake City. Romney plans to announce Utah Senate campaign Thursday, Feb. 15, 2018. Three people with direct knowledge of the plan say Romney will formally launch his campaign in a video. (AP Photo/Rick Bowmer, File)

ঠিকানা ডেস্ক: শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে মায়ামির উত্তরের পার্কল্যান্ড ম্যাজরিটি স্টোনম্যান ডগলাস হাই স্কুলের বহিষ্কৃত ছাত্র নিকোলাস ক্রুজের সেমি অটোমেটিক রাইফেলের সাহায্যে নির্বিচারে গুলি করে ১৭টি তরতাজা প্রাণ মুহূর্তে ছিনিয়ে নেয়ার হৃদয়বিদারক ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে ম্যাসাচুসেটসের সাবেক গভর্নর এবং রিপাবলিকাদন দলীয় সাবেক প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী রিপাবলিকান মিট রমনী সিনেটর পদে তার প্রতিদ্বন্দ্বিতার ঘোষণা আপাতত স্থগিত করেছেন। ১৬ ফেব্রুয়ারি জানা যায় যে, অবসরে যাওয়া সিনেটর অরিন হ্যাটচের ইউটার আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার জন্য মিট রমনী ঘোষণা দেয়ার জন্য আগে থেকেই প্র¯তি নিয়েছিলেন। কিš জাতীয় পর্যায়ে ফ্লোরিডা হাই স্কুলের ভয়াবহ শুটিং রমনীসহ সকল আমেরিকানকে বিস্ময় বিমূঢ় করেছে এবং পরি¯িতির ভয়াবহতা উপলব্ধি রমনী তার পূর্ব সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসেছেন।
জানা যায়, ১৬ ফেব্রুয়ারি রমনীর একটি ক্যাম্পেইন ভিডিও প্রকাশ করার দিন-ক্ষণ নির্ধারিত ছিল। কিš ১৫ ফেব্রুয়ারি রমনী এক টুইট বার্তায় জানান যে ম্যাজরিটি স্টোনম্যান ডগলাস হাই স্কুলে গোলাগুলিতে নিহতদের আত্মার প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন এবং তাদের শোকার্ত স্বজনদের প্রতি সহমর্মিতা প্রকাশের খাতিরে তিনি ১৬ ফেব্রুয়ারি তার প্রার্থিতা ঘোষণা করবেন না। প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কড়া সমালোচক ৭০ বছর বয়স্ক রমনী ইউটাহর সিনেট আসনটি নিজ দখলে আনতে সক্ষম হবেন বলে অনেকের দৃঢ় বিশ্বাস। অনেকের ধারণা, ক্যাম্পেইন ভিডিওতে রমনী প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের ভমিকা এড়িয়ে যাবেন এবং ইউটারহ ¯ানীয় সমস্যা সমাধানকে প্রাধান্য দিবেন। রমনীর ভিডিওতে বর্ণিত রয়েছে যে ইউটাহ থেকে ওয়াশিংটনের জানার অনেক কিছু রয়েছে।
ম্যাসাচুসেটসের সাবেক গভর্নর এবং সর্বাধিক খ্যাতনামা মরমনদের অন্যতম রমনী ব্যাপক মরমন অধ্যুষিত ইউটাহতে অত্যন্ত শ্রদ্ধেয় এবং জননন্দিত ব্যক্তি। ২০১২ সালে রিপাবলিকান দলীয় প্রার্থী হিসেবে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে তৎকালীন ক্ষমতাসীন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার নিকট পরাজিত হওয়ার পর রমনী ইউটাহতে ¯ানান্তরিত হন।
রমনী ইউটাহর পরবর্তী সিনেটর নির্বাচিত হলে তার সমর্থকদের অনেকে আশা করেন যে তিনি প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের অনেক কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে সক্ষম হবেন। যাহোক, সিনেটর পদে রমনীকে তেমন বিরোধিতার সম্মুখীন হতে হবেনা বলেই অনেকের বদ্ধমূল ধারণা। ইউটাহর কনজারভেটিভরাও রমনীকে অত্যন্ত শ্রদ্ধার দৃষ্টিতে দেখেন বলে জানা যায়। লক্ষ্যণীয় ৪ দশকেরও বেশি কাল সিনেটর হিসেবে দায়িত্ব পালনের পর হ্যাটচ ডিসেম্বরে অবসরে যাবেন।