সিরিয়ায় যুক্তরাষ্ট্রের বিমান হামলা তিন দিনে নিহত ২০০

ঠিকানা ডেস্ক : সিরিয়ার পূর্বাঞ্চলে আবারও সরকারি বাহিনীর সঙ্গে যুদ্ধের মুখোমুখি যুক্তরাষ্ট্র। গত বুধবার জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস) ও সরকারি বাহিনীর ওপর বিমান হামলা চালিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বাধীন আন্তর্জাতিক জোট। হামলায় অন্তত ২০০ জন লোক নিহত হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্র সমর্থিত বিদ্রোহী গোষ্ঠী সিরিয়ান ডেমোক্রেটিক ফোর্সের (এসডিএফ) ওপর হামলার প্রতিশোধস্বরূপ এ হামলা চালায় যুক্তরাষ্ট্র্র। খবর বিবিসির।
যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বাধীন জোট জানায়, সিরিয়ান বিদ্রোহী গোষ্ঠী এসডিএফের প্রধান কার্যালয়ে আসাদ সরকারের বাহিনী হামলা চালায়। এ সময় যুক্তরাষ্ট্র সমর্থিত জোটের উপদেষ্টারাও সেখানে অবস্থান করছিলেন। এ হামলার জবাব দিতেই যুক্তরাষ্ট্র এ বিমান হামলা করেছে।
যুক্তরাষ্ট্রের এক সামরিক কর্মকর্তা জানান, বিদ্রোহীদের ওপর সরকার সমর্থিত প্রায় ৫০০ সেনা মর্টার, ট্যাঙ্ক ও গোলা নিক্ষেপ করে হামলা চালায়। তারা এ হামলায় টি-৫৪ ও টি-৭২ নামে ট্যাঙ্ক ব্যবহার করে, যা সাধারণত যুদ্ধক্ষেত্রেই ব্যবহার করা হয়। এসডিএফের প্রধান কার্যালয়ের ৫০০ মিটারের মধ্যে থেকেই ২০ থেকে ৩০টি কামানের গোলা নিক্ষেপ করা হয়। পরে যুক্তরাষ্ট্র জোট বেঁধে ওই হামলার জবাব দেয়। এতে সম্ভবত সরকার সমর্থক ১০০ জন নিহত হয়। এটাকে যুক্তরাষ্ট্র জোট আত্মরক্ষা হিসেবেই দেখছে।
মার্কিন ওই সামরিক কর্মকর্তা বলেন, আত্মরক্ষামূলক এ বিমান হামলায় যুক্তরাষ্ট্রের কোনো সেনা হতাহত হয়নি। তবে এসডিএফের এক বিদ্রোহী আহত হয়েছে।