সীমান্ত নিরাপত্তা জোরদার সাহায্য কমানোর ঘোষণা

ঠিকানা রিপোর্ট: গুয়েতেমালা, হন্ডুরাস এবং এল সালভাডর থেকে বন্যার জোয়ারের মত ধেয়ে আসা অবৈধদের অনুপ্রবেশ ঠেকাতে সীমান্তে প্রহরা জোরদার এবং দেশগুলোর জন্য আমেরিকার সাহায্য কমানোর বজ্রকঠোর শপথ উচ্চারণ করেছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। মেক্সিকো সীমান্ত দিয়ে ৫ সহ¯্রাধিক অবৈধ অভিবাসী যুক্তরাষ্ট্রের ঢুকে পড়ার মরণপণ প্রচেষ্টা চালানোর পরিপ্রেক্ষিতে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প উক্ত পদক্ষেপ গ্রহণের ঘোষণা দিয়েছেন বলে ২৩ অক্টোবর জানা গেছে।
টেক্সাসে ক্যাম্পেইন র্যালীতে যোগদানের উদ্দেশ্যে হোয়াইট হাউজ ত্যাগের প্রাক্কালে ট্রাম্প বলেন, বহু বছর ধরে অনেকগুলো দেশকে আমরা রাশি রাশি অর্থ সাহায্য দিয়ে যাচ্ছি যা আদৌ ন্যায়বিচার ও কল্যাণকর নয়। রাশি রাশি অর্থ সাহায্য দেয়ার পর আমরা দেশগুলোর শাসকদের প্রতি অনুরোধ করেছিলেম নিজ নিজ দেশের বাসিন্দাদের যুক্তরাষ্ট্রে অবৈধ প্রবেশে উৎসাহিত করার স্থলে নিজেদের দেশে কর্মসংস্থানের মাধ্যমে ধরে রাখতে। অঢেল সাহায্যপ্রাপ্ত দেশগুলো নিজ নিজ দেশের বাসিন্দাদের স্বদেশে ধরে রাখতে চরমভাবে ব্যর্থ হচ্ছে। ফলে বন্যার ¯্রােতের মত ৫ সহ¯্রাধিক অবৈধ অভিবাসী যুক্তরাষ্ট্রে ঢুকে পড়ার জন্য সীমান্তরক্ষীদের সাথে অনেকটা যুদ্ধে লিপ্ত হয়েছে।
যাত্রার পূর্ব মুহূর্তে ট্রাম্প এক টুইট বার্তায় সেন্ট্রাল আমেরিকার দেশগুলোর জন্য সাহায্য আংশিক বন্ধ করার কিংবা কমিয়ে দেয়ার নির্দেশ দেন। তবে কি পরিমাণ বরাদ্দ কমাতে হবে সে ব্যাপারে ট্রাম্প কিছু বলেন নি। প্রাপ্ত তথ্যানুসারে, ২০১৭ অর্থ বছরে গুয়াতেমালা, হন্ডুরাস এবং এল সালভাডর আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রের কাছ থেকে ৫০০ মিলিয়ন ডলারেরও বেশি সাহায্য পেয়েছিল।
মধ্যবর্তী নির্বাচনে রিপাবলিকানদের বিজয় নিশ্চিত করার মাধ্যমে কঠোর ইমিগ্রেশন আইন প্রণয়নের লক্ষে ট্রাম্প রীতিমত আদা জল খেয়ে লেগেছেন। ইতোমধ্যে নিজের সাবেক রাজনৈতিক শত্রু টেক্সাসের সিনেটর টেড ক্রুজের পক্ষে হিউস্টনে একটি র্যালীতেও অংশ নিয়েছেন।
ট্রাম্প বলেন, বর্তমানে জোরপূর্বক অবৈধভাবে যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশে আগ্রহীদের অনেকে কুখ্যাত এমএস-থার্টিন গ্রুপের সদস্য এবং অনেকে মধ্যপ্রাচ্যের বাসিন্দা। ট্রাম্প বলেন, আমেরিকার মাটি থেকে এমএস-থার্টীন গ্রুপের মূলোচ্ছেদে এবং মধ্যপ্রাচ্যের সন্ত্রাসীদের অনুপ্রবেশ ঠেকাতে আমরা বদ্ধপরিকর। ট্রাম্প বলেন, সর্বসাধারণের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে আমরা অনড় সঙ্কল্পবদ্ধ। আমরা নিরাপত্তা চাই। আমরা নিরাপত্তা চাই।
অবৈধদের বর্তমান প্রবাহ ঠেকাতে মেক্সিকো সরকার বলিষ্ঠ পদক্ষেপ গ্রহণ না করায় ট্রাম্প হতাশ হয়েছেন। উদ্ভূত পরিস্থিতিকে জাতীয় দুর্যোগ আখ্যায়িত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য ট্রাম্প বর্ডার প্যাট্রোলকে নির্দেশ দিয়েছেন বলে জানা যায়। বর্ডার প্যাট্রোল অ্যান্ড মিলিটারীকে এক টুইটবার্তায় প্রেসিডেন্ট সতর্ক করে বলেন, এটি জাতীয় দুর্যোগ। অবশ্যই আপনাদের নীতিমালা পরিবর্তন করুন। এদিকে পেন্টাগনের মুখপাত্র আর্মী লেফটেন্যান্ট কর্নেল জ্যামী ড্যাভিড বলেন, বর্ডার সিকিউরিটির জন্য বাড়তি ট্রুপ সরবরাহের কোন নির্দেশ পেন্টাগন পায়নি।
ক্যাপশন: গুয়েতেমালার পতাকাসহ অবৈধদের জোরপূর্বক প্রবেশের দৃশ্য।