‘স্কয়ারমাতা’ অনিতা চৌধুরী আর নেই

ছবি সংগৃহীত

ঠিকানা অনলাইন : বাংলাদেশের শীর্ষস্থানীয় শিল্পগ্রুপ স্কয়ারের প্রতিষ্ঠাতা স্যামসন এইচ চৌধুরীর স্ত্রী অনিতা চৌধুরী আর নেই।

১৩ নভেম্বর রোববার দুপুর একটার দিকে স্কয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় অনিতা চৌধুরী মারা যান বলে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে। তার বয়স হয়েছিল ৯০ বছর।

অনিতা চৌধুরীর জন্ম ১৯৩২ সালের ৫ আগস্ট। ১৯৪৭ সালে স্কয়ার গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা স্যামসন এইচ চৌধুরীর সঙ্গে তার বিয়ে হয়। স্যামসন চৌধুরীর মৃত্যুর পর প্রতিষ্ঠানের ৬৪ হাজার কর্মীকে সন্তানের মতো ভালোবাসতেন তিনি। সে জন্য তাকে ‘স্কয়ারমাতা’ বলা হতো।

চার ছেলে ও এক মেয়ের মা অনিতা চৌধুরীর মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে স্কয়ার গ্রুপে।

শোক প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার শামসুল হক টুকু, তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ প্রমুখ।

স্কয়ার গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান স্যামসন এইচ চৌধুরীর সহধর্মিণী অনিতা চৌধুরীর মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রী তার আত্মার শান্তি কামনা করেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

এক শোকবার্তায় ডেপুটি স্পিকার বলেন, ‘অনিতা চৌধুরী ছিলেন একজন মানবহিতৈষী। তিনি সব সময় মানুষের কর্মসংস্থান তৈরির মাধ্যমে মানবসম্পদ গড়ার বিষয়ে ভাবতেন। এ ছাড়া গরিব ও দুঃখী মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে তাদের সহযোগিতা করতেন। তার মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করছি এবং তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানাচ্ছি।’

তথ্যমন্ত্রী শোকবার্তায় বলেন, ‘মহীয়সী নারী অনিতা চৌধুরী একই সাথে মাতৃস্নেহ ও বিশালায়তন প্রতিষ্ঠান পরিচালনায় দিকনির্দেশনার যে দৃষ্টান্ত রেখে গেছেন, তা অনন্য। স্কয়ার গ্রুপের বর্তমান চেয়ারম্যান স্যামুয়েল এস চৌধুরী, স্কয়ার ফার্মার ভাইস চেয়ারম্যান রত্না পাত্র, স্কয়ার ফার্মার ব্যবস্থাপনা পরিচালক তপন চৌধুরী ও স্কয়ার টয়লেট্রিজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক অঞ্জন চৌধুরীর সাফল্যের নেপথ্য কারিগর তাদের প্রয়াত মাতার প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করি।’

ঠিকানা/এনআই