স্ত্রী-কন্যার কথা গোপন রেখে প্রেম করতেন সাইফ?

পাতৌদির নবাব, বলিউড তারকা সাইফ আলি খান সর্বদাই নারীসঙ্গে ছিলেন। বিনোদন দুনিয়ায় দীর্ঘ পথ পাড়ি দিয়েছেন এ সুদর্শন। পেছনের দিকে তাকালে দেখা যায়, পেশাগত জীবনের বাইরে ব্যক্তিগত জীবন নিয়েও বহুবার খবরের শিরোনাম হয়েছেন এ অভিনেতা।
নিজের চেয়ে অনেক বয়সী অমৃতা সিংকে বিয়ে করেন সাইফ আলি খান, তাদের ঘরে দুই সন্তান সারা আলি খান ও ইব্রাহিম আলি খান। অমৃতার সঙ্গে বিচ্ছেদের পর কারিনা কাপুরের প্রেমে পড়েন সাইফ। কিন্তু আরো একটি দিক ছিল সাইফের জীবনে। খুব কম মানুষই জানেন, অমৃতা সিং ও কারিনা কাপুর ছাড়াও আরেক নারী এসেছিলেন সাইফের জীবনে। তিনি হলেন সুইডেন বংশোদ্ভূত ইতালির মডেল রোজা কাতালানো।

কেনিয়ায় শুটিং চলাকালে সাক্ষাৎ হয় রোজা ও সাইফের। দ্রুতই একে অপরের প্রতি আকর্ষিত হন তারা। এরপর বিভিন্ন পার্টি, অ্যাওয়ার্ড শো, ইভেন্ট, ফটোশুটে একসঙ্গে দেখা যেত এ যুগলকে।
সাইফের সঙ্গে তখন সদ্য বিচ্ছেদ হয়েছে অমৃতার। আর এ কারণে বেশ স্বাধীনতা অনুভব করতেন তিনি। যা হোক, খুব বেশিদিন স্থায়ী হয়নি রোজা ও সাইফের প্রেম। এক সাক্ষাৎকারে রোজা জানিয়েছিলেন, সাইফের বিবাহিত জীবন, অমৃতা সিংয়ের অস্তিত্ব, দুই সন্তান সারা ও ইব্রাহিম এবং ডিভোর্স এসব সম্পর্কে কিছুই জানতেনই না তিনি। এই সুপারমডেল আরো জানান, তিনি এসব সম্পর্কে অবগত হয়েছিলেন শুধু ভারতে থাকার সময়। এর আগে সবকিছুই তার কাছে লুকিয়েছিলেন সাইফ।
কিন্তু সময়ের সঙ্গে সঙ্গে সাইফের ছেলেমেয়ের সঙ্গেও বন্ধুত্বপূর্ণ আচরণ করেন রোজা কাতালানো। তবে ছাড়াছাড়ি হয়ে যায় তাদের। সন্তানদের সংস্পর্শে আসার পরেই নাকি কঠিন মুহূর্তের ভেতর দিয়ে যান রোজা।
জনপ্রিয় সাময়িকী কসমোপলিটনকে রোজা বলেছিলেন, ‘নিজেকেই জিজ্ঞেস করতাম কেন, কিভাবে এসব ঘটে গেল?’ রোজা এ-ও বলেছিলেন, ‘একজন মানুষ একা কিছুই করতে পারে না, যদি না দুই পক্ষ থেকে ব্যাপারগুলো আসে। কিছু করতে হলে তো দুজনকে লাগবে। অন্যথায় এটা হবে নৌকায় বসা দুজনের মতো—একজন ডান দিকে যেতে চাইছে, অন্যজন বাম দিকে।’
যা হোক, পরে কারিনা কাপুরকে বিয়ে করেন সাইফ আলি খান। তাদের ঘর আলো করে আছে দুই বছরের ছোট্ট তৈমুর আলি খান। ওদিকে, সাইফ-অমৃতার কন্যা সারা আলি খান গেল ডিসেম্বরে ‘কেদারনাথ’ ও ‘সিম্বা’ দিয়ে বলিউডে পা রেখেছেন। অল্পসময়ের মধ্যেই তুমুল জনপ্রিয়তা অর্জন করেছেন ২৩ বছরের এ সুন্দরী।