স্মার্ট সিটি গড়তে যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসীদের সহযোগিতা চাইলেন মেয়র আতিক

ফ্লোরিডায় কনস্যুলেট অফিসে মতবিনিময়

ঠিকানা রিপোর্ট : রাজধানী ঢাকাকে স্মার্ট সিটি হিসেবে গড়ে তুলতে যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন দপ্তর ও সংস্থায় কর্মরত প্রবাসী বাংলাদেশিদের সহযোগিতা চেয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম।
ফ্লোরিডায় বাংলাদেশ কনস্যুল জেনারেল অফিসে মতবিনিময়কালে স্থানীয় প্রবাসী বাংলাদেশিদের উদ্দেশে তিনি এ কথা বলেন।
প্রবাসী বাংলাদেশিদের উদ্দেশে ডিএনসিসি মেয়র বলেন, আপনাদের জন্য ডিএনসিসির দুয়ার ২৪ ঘণ্টা খোলা। যেকোনো নতুন কনসেপ্ট আমাদের সঙ্গে শেয়ার করতে পারেন। আপনাদের সবার সহযোগিতায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষিত স্মার্ট বাংলাদেশের স্মার্ট সিটি কর্পোরেশনের কাজ ডিএনসিসি থেকেই শুরু করতে চাই।
তিনি বলেন, কোনো কিছুর গবেষণা না থাকলে টেকসই উন্নয়ন হবে না। আমি আপনাদের সহযোগিতা চাই। ডিএনসিসিতে অনলাইনে ট্যাক্স সেবা শুরু হয়েছে। এটি বাস্তবায়ন করতে অনেক কষ্ট হয়েছে। অনলাইন সেবা চালু হওয়াতে দুষ্টু লোকদের অবৈধ লেনদেন বানচাল হয়েছে। তাই সেবাটি চালু করা বড় চ্যালেঞ্জ ছিল। প্রধানমন্ত্রী ডিজিটাল ও স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে অনেক কষ্ট করছেন। পদে পদে বাধা আসছে, তারপরও চেষ্টা করে যাচ্ছেন। আমরাও প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনাকে বাস্তবে রূপ দিতে কাজ করে যাচ্ছি।

ফ্লোরিডা : বক্তব্য দিচ্ছেন মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম।

তিনি আরো বলেন, রাজউক ও ডিপিডিসির ডাটা বেইজ সংগ্রহ করা হবে। সেই ডাটা বেইজ সমন্বয় করে বাসা-বাড়ির সর্বশেষ হালনাগাদ তথ্য সংগ্রহ করা হবে। তখন আর কেউ রাজস্ব ফাঁকি দিতে পারবে না। আমরা ট্রেড লাইসেন্স অনলাইনে চালু করেছি। রিকশার জন্য কিউআর কোড চালু করতে যাচ্ছি। আমরা অনেক কিছুতেই স্মার্ট বাংলাদেশের ছোঁয়া দিতে শুরু করেছি। স্মার্ট সিটি গড়তে আপনাদের সহযোগিতা লাগবে।
মেয়র আতিক বলেন, বিদেশের অনেকে যদি ডিএনসিসিতে যেকোনো ভালো পরামর্শ দিতে চান, সেই সুযোগ আমি দেবো। এমনও হতে পারে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আপনারা আমাদের পরামর্শ দিতে পারেন। আপনাদের সহযোগিতায় নগরবাসীর জন্য নতুন কিছু করতে চাই। দেশ আপনাদের দিকে তাকিয়ে আছে। সিটি আপনাদের দিকে তাকিয়ে আছে। যেকোনো সময় নতুন কোনো ধারণা থাকলে যোগাযোগ করবেন।
এ সময় ডিএনসিসির প্রতিনিধি দলের যুক্তরাষ্ট্রে সফরের বিষয় উল্লেখ করে ডিএনসিসি মেয়র বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের স্টেট ডিপার্টমেন্টের অর্থায়নে আমরা ফ্লোরিডার মিয়ামিতে কয়েকদিন ধরে বেশ কিছু বিষয়ের ওপর অভিজ্ঞতা অর্জন করেছি। এখানকার ভালো চর্চা দেশেও বাস্তবায়ন করতে চাই। আমরা এখানে শিখতে এসেছি, ঘুরতে নয়। প্রতিটি বিষয়ের ওপর গুরুত্ব সহকারে শেখানো হচ্ছে।
মতবিনিময় সভায় সভাপতিত্ব করেন কনসাল জেনারেল ইকবাল আহমেদ। আরো উপস্থিত ছিলেন ডিএনসিসির সচিব মোহাম্মদ মাসুদ আলম ছিদ্দিক, আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা সাজিয়া আফরীন, কাউন্সিলর মো. মতিউর রহমান, কাউন্সিলর ফরিদ আহমেদ ও কাউন্সিলর মিতু আক্তার।