১৬ হাজার টাকার টিকিট ১৩ লাখ

স্পোর্টস ডেস্ক : আইসিসির নিয়ম অনুযায়ী টিকিট কিনে পুনরায় বিক্রি করা একেবারে আইনবহির্ভূত। প্রচলিত ভাষায় যাকে বলে টিকিট ব্ল্যাকিং। কিন্তু এই নিয়মকে রীতিমতো বুড়ো আঙুল দেখিয়ে দেদার টিকিট ব্লুযাক করছে ভিয়াগোগো নামের এক ইংলিশ প্রতিষ্ঠান। অবশ্য ইংল্যান্ডের অভ্যন্তরীণ নিয়মে টিকিট কিনে পুনরায় আরেকজনের কাছে বিক্রয় করা যায়।

বিবিসি জানিয়েছে, ক্রিকেট সংস্থার আইন অমান্য করে ১৬ হাজার টাকার টিকিট এখন বিক্রি হচ্ছে ১৩ লাখে ঐতিহাসিক লর্ডসে অনুষ্ঠিত হবে বিশ্বকাপের ফাইনাল। শিরোপা ফয়সালার সেই লড়াই দেখার জন্য সাধারণত দর্শকদের জন্য টিকিটপ্রতি ১৫১ পাউন্ড মূল্য নির্ধারণ করে দেয় আইসিসি। বাংলাদেশি মুদ্রায় যার পরিমাণ প্রায় ১৬ হাজার টাকা। কিন্তু ভিয়াগোগো এই দামের কয়েকগুণ বাড়িয়ে স্থানীয়দের কাছে টিকিট ছাড়ছে।

এ ব্যাপারে বিশ্বকাপ আয়োজকের দায়িত্বে থাকা এক মুখপাত্র বলেন, আমরা বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে দেখছি। এ ব্যাপারে আমাদের আইনজ্ঞের সঙ্গে আলাপ করা হবে। দ্বিতীয় শ্রেণির যেসব সাইট আমাদের টিকিট বিক্রি করছে তারা নিশ্চয়ই আইন অমান্য করছে। আমরা শিগগিরই এ ব্যাপারে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া চেষ্টা করব। এ দিকে ভিয়াগোগোর এক কর্মকর্তা বিষয়টি অস্বীকার করছেন। তিনি বলেন, ভিয়াগোগো একটা মার্কেটপ্লেস। এখানে কোনো অবৈধ টিকিট বিক্রি হয় না। আমরা টিকিট ব্ল্যাকিংকারীদের ঘৃণা করি। তবে প্রায় সময় আয়োজকরা বলেন আমরা নাকি টিকিট ব্ল্যাক করি। আসলে এটা সত্য না। আমাদের থেকে যে কেউ সহজেই টিকিট কিনতে পারবেন। ভিয়াগোগো এমন একটা প্ল্যাটফর্ম যার মাধ্যমে তৃতীয় পক্ষের কাছে কেবল টিকিট পৌঁছে দেওয়া হয়। তবে আমি নিশ্চিত করে বলতে পারি, আমরা যে টিকিট দেই সেটা একেবারে বৈধ। এ বছরের ৩০ মে থেকে ইংল্যান্ড ও ওয়েলসে শুরু হবে ক্রিকেট বিশ্বকাপের ১২তম আসর। ১৪ জুলাই ফাইনালের মধ্য দিয়ে শেষ হবে জমজমাট এই আসরটি।